dsc_1743

রংপুরে কুদরাত-ই-খুদা সায়েন্স ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

দেশের স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিজ্ঞান শিক্ষা জনপ্রিয় করে তোলা, শিক্ষার্থীদের সত্যিকারের বিজ্ঞানীদের মত চিন্তা ও গবেষণা করতে শেখানোর লক্ষ্য নিয়ে এ বছর সপ্তমবারের মত বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতি (এসপিএসবি) এর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস-২০২০। কংগ্রেসের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ০৫ মার্চ, রংপুর জেলার কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ পৌরসভায় ড্রিমস ফর টুমরো সেন্টারে বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির আয়োজনে অনুষ্টিত হয়েছে “কুদরাত-ই-খুদা সায়েন্স ক্যাম্প ২০২০- রংপুর পর্ব।” এই ক্যাম্পে ৩ টি বিদ্যালয়ের মোট ৩৩ জন শিক্ষার্থী একত্রিত হয়ে হাতে কলমে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে গবেষণা শেখার সুযোগ পায়।
ক্যাম্পটিতে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান গবেষণা ও বৈজ্ঞানিক কার্যপদ্ধতি, গ্রাফ, মাপজোখ সম্পর্কে ধারণা দেয়া এবং বিভিন্ন মজার মজার সায়েন্টিফিক এক্সপেরিমেন্ট দেখানো হয়। বিজ্ঞানকে কিভাবে খুব সহজে ও আনন্দের সাথে শেখা যায়, শিক্ষার্থীদেরকে সে সম্পর্কেও ধারণা দেওয়া হয়। এছাড়াও শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেসে অংশগ্রহণের নিয়মকানুন সম্পর্কে অবগত করা হয়। কিভাবে বৈজ্ঞানিক প্রজেক্ট, পেপার ও পোস্টার তৈরি করতে হয় এবং তা উপস্থাপন করতে হয় সেগুলো হাতেকলমে তাদেরকে শেখানো হয়। অবৈজ্ঞানিক যুক্তি বাদ দিয়ে কিভাবে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে গবেষণা করতে হয় সেটিও শিক্ষার্থীদের ব্যাখ্যা করা হয়।
ক্যাম্পের অভিজ্ঞতা নিয়ে শিক্ষার্থীরা জানায়, ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করার পর বিজ্ঞান নিয়ে তাদের ভুল ধারনাগুলো বদলে গিয়েছে এবং ভবিষ্যতে বৈজ্ঞানিক কার্যপদ্ধতি অনুসরন করেই গবেষনা করবে। তাছাড়া কংগ্রেসে অংশগ্রহণের আগে এরকম প্রস্তুতিমূলক কর্মশালা অংশগ্রহণকারীদের জন্য অনেক উপকারে আসবে এবং এই কর্মশালাটি শুধু কংগ্রেসের জন্যই নয়, ভবিষ্যতে আরো বিভিন্ন সময়ে কাজে দিবে বলে তারা মনে করছে।
এই সায়েন্স ক্যাম্প শেষে শিক্ষার্থীরা তাদের অভিজ্ঞতা ও মতামত ব্যক্ত করে। এসময় হারাগাছ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী মাসুদা আক্তার মমতা বলেছে, “আমি এই ক্যাম্পে এসে খুবই আনন্দিত আমি চাই এটি যেন দেশের সব জায়গায় অনুষ্ঠিত হয়।”
নবম শ্রেণির আরেক শিক্ষার্থী মোঃ মুজাহিদুর রহমান জানায় যে, “ এই আয়োজন আমার কাছে নতুন একটি অভিজ্ঞতা সৃষ্টি করেছে এবং আমি বৈজ্ঞানিক গবেষণার গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছি ও ভাবতে শিখেছি। এজন্য আমি বংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সকলকে ধন্যবাদ জানাই। ”
দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোছাঃ আয়েশা আক্তার বর্ষা জানায়, “ আমি ভাইয়াদের সহোযোগীতায় বৈজ্ঞানিক কার্যপদ্ধতি শিখতে পেরে অনেক উপকৃত হয়েছি এবং আগামীতে আরো ভালো ভাবে কাজ করার আগ্রহ পেয়েছি।”
হারাগাছ-এর ক্যাম্পটি পরিচালনা করেছে বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির অ্যাকাডেমিক টিমের সদস্য মুশফিকুর রহমান প্রিয় এবং মোঃ সাইম সরকার সিফাত।
দেশের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান শিক্ষা জনপ্রিয় করে তোলা, শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানীদের মতো করে চিন্তা এবং গবেষণা করতে শেখানো এবং আন্তর্জাতিক ভাবে বিজ্ঞান আয়োজনগুলোতে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণের লক্ষ্য নিয়ে ৩-৪ এপ্রিল ২০২০ তারিখে ঢাকার আগারগাওয়ে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে ৭ম বারের মতো আয়োজন করা হচ্ছে শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস ২০২০।
তৃতীয় থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়া খুদে বিজ্ঞানীরা ৩টি ক্যাটাগরিতে কংগ্রেসে অংশ নিতে পারবে। ক্যাটাগরিগুলো হল প্রাইমারি (৩য়-৫ম শ্রেণি), জুনিয়র (৬ষ্ঠ-৯ম শ্রেণি) এবং সিনিয়র (১০ম-১২শ শ্রেণি)। এই বিজ্ঞান কংগ্রেসে শিক্ষার্থীরা তাদের বৈজ্ঞানিক গবেষণা উপস্থাপন করতে পারবে বৈজ্ঞানিক পেপার, বৈজ্ঞানিক পোস্টার ও বিজ্ঞান প্রজেক্ট এর মাধ্যমে।
রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে www.cscongress.net ওয়েবসাইটে গিয়ে। রেজিষ্ট্রেশন চলবে ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে ১৪ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত। রেজিস্ট্রেশনের সময় শিক্ষার্থীকে তার গবেষণার একটি ধারণাপত্র (কনসেপ্ট পেপার) জমা দিতে হবে। নির্বাচিত কনসেপ্ট পেপারের তালিকা প্রতি সপ্তাহে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। শুধুমাত্র নির্বাচিত গবেষণাগুলো কংগ্রেসে অংশ নেবার সুযোগ পাবে।
গতবছরের মত এই বছরও কংগ্রেসে গবেষণার জন্য মাকসুদুল আলম বিজ্ঞান ল্যাবরেটরি (ম্যাসল্যাব) থেকে দেয়া হবে গবেষণাবৃত্তি চিলড্রেন্স’ সায়েন্স ফান্ড। গবেষণাবৃত্তির জন্য ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রপোজাল জমা দিয়ে আবেদন যাবে ১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ পর্যন্ত। এখানেও আবেদনকারীদের মধ্য থেকে নির্বাচিত কয়েকজনকে এই ফান্ডের আওতায় রিসার্চ গ্র্যান্ট এবং ট্রাভেল গ্র্যান্ট প্রদান করা হবে। গ্র্যান্টের বিস্তারিত পাওয়া যাবে শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেসের ওয়েবসাইটে।
কংগ্রেসের প্রস্তুতির লক্ষ্যে ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসজুড়ে সারাদেশে আয়োজিত হচ্ছে এক্টিভেশন কর্মশালা ও কুদরাত-ই-খুদা সায়েন্স ক্যাম্প।